দুর্জন বিদ্ধান হইলেও পরিত্যাজ্যI

দৃর্জন মানে দুস্ট-প্রকৃতির লোক ৷ এ ধরনের মানুষ বিদ্বান হলেও অবশ্যই পরিত্যাজ্য। দুষ্ট লোক দেশ ও সমাজের শএু ৷ তারা বিদ্বান হলেও লোকে তাদের ঘৃণা করে।

বিদ্যা মানুষের অমূল্য সম্পদ ৷ বিদ্বান ব্যাক্তি সর্বত্র সম্মানিত ৷ কিন্তু বিদ্বান ব্যক্তি যদি চরিত্রৰান না হন, বরং দুষ্ট-প্রকৃতির হন, তবে তার কাছ থেকে দূরে থাকাই মজ্ঞালজনক ৷ কারণ, শিক্ষিত অথচ দৃশ্চরিত্র লোক সবচেয়ে ভয়াবহ ৷ মে কোনো মুহূর্তে এ ধরনের লোক নৃশংসতম কাজটি করতে পারে I বিদ্যা যার চরিত্রকে সংশোধন করতে পারেনি, তাকে দিয়ে মানুষের কোনো কল্যাণ হতে পারে না ৷ দুর্জন ব্যত্তি সাপের সাথে ভুলনীয় এবং তার অর্জিত বিদ্যা সাপের মাথার মণির সঙ্গে তুলনীয়। সাপকে মানুষ ভয় করে। কারণ মে কোনো সময় সাপ তার ছোবল দিয়ে প্রাণনাশ করতে পারে I তেমনি বিদ্বান হয়েও যিনি দৃর্জন, তার কাছ থেকে যে-কােনাে সময় ক্ষতির আশঙ্কা থাকে। এ ধরনের ব্যক্তির সান্নিধ্য কেউ কামনা করে না। সকলেই তাকে ঘৃণা করে।

আরও জানুন> আত্মশক্তি অর্জনই ক্ষার উদ্দেশ্য

চরিত্র মানুষের শ্রেষ্ঠ সম্পদ ৷ বিদ্বান ব্যক্তি দৃশ্চরিত্র হলে সে অমানুষে পরিণত হয়। তাই শিক্ষিত হলেও চবিত্রহীন দৃর্জন ব্যন্তির সাহচর্য থেকে দূরে থাকা উচিত।